Showing posts with label Tips. Show all posts
Showing posts with label Tips. Show all posts

Sunday, September 27, 2020

ডট কম ডোমেইন মাত্র ৮৪ টাকায়ঃ সবচেয়ে কমদামে ডট কম ডোমেইন।

ডট কম ডোমেইন মাত্র ৮৪ টাকায়ঃ সবচেয়ে কমদামে ডট কম ডোমেইন।

ডট কম ডোমেইন মাত্র ৮৪ টাকায়ঃ সবচেয়ে কমদামে ডট কম ডোমেইন। 

dot com domain offer 2020-2021


হ্যালো ফ্রেন্ডস, আশা করি সকলে ভালো আছেন।

আজকে আমি দেখাবো কিভাবে সবচেয়ে কমদামে একটি ডট কম ডোমেইন নিবেন।
ডোমেইনটি নিতে আপনার মোট ৮৪ টাকা খরচ হবে। 


তো চলুন দেখে নিই কিভাবে সবচেয়ে কমদামে একটি ডট কম ডোমেইন নিবেন। 


স্টেপ ১। প্রথমে এই in.godaddy.com যান। নিচে গিয়ে ছবির দেখানো যায়গায় Usd বানিয়ে দিন।




স্টেপ ২। আপনার কাঙ্খিত ডোমেইন নাম লিখে সার্চ করুন।


স্টেপ ৩। এরপর Add to cart এ ক্লিক করুন।



স্টেপ ৪। এরপর নিচের মত পেইজ দেখতে পাবেন।  ডোমেইন year এ 1 year সিলেক্ট করে দিন। 



স্টেপ ৫। ডোমেইনের নিচে যদি কোন কিছু লিখা থাকে ওইগুলা সব ডিলেট করে দিন। 

এরপর নিচের মত Continue to cart এ ক্লিক করুন।



স্টেপ ৬। এরপর নিচের পেইজের মত দেখতে পাবেন। এমন না আসলে একটু অপেক্ষা করুন চবার Sign up করতে যাবেন না। 



স্টেপ ৭। এরপর নিচের মত দুই জায়গায় No thanks সিলেক্ট করে দিন। 



স্টেপ ৮। এরপর নিচের মত পেইজ দেখতে পাবেন। 

এরপর Have a promo code লিখায় ক্লিক করুন।



স্টেপ ৯। GDD99COM1 প্রোমো কোডটি দিন। Apply এ ক্লিক করুন।

ব্যাস হয়ে গেল। 



স্টেপ ১০। এরপর নিচের মত পেইজ দেখতে পাবেন। দেখুন আগে কত ডলার ছিল আর এখন কত ডলার হয়েছে।



স্টেপ ১১। Check out লেখায় ক্লিক করুন।


স্টেপ ১২। ইমেইল পাসওয়ার্ড দিয়ে Create account এ ক্লিক করুন। 



এরপরে যা যা করতে হয় অগুলো আপনারা নিজেরাই পাবেন আশা করি।


এরপরও যদি না পারেন তাহলে যোগাযোগ করতে ভুলবেন না।

এছাড়া যে জায়গায় আটকে পড়বেন সাথে সাথে আমাদের জানাবেন।


এভাবেই আপনি খুব অল্প টাকায় একটি ডট কম ডোমেইন পেয়ে যাবেন।

বাংলাদেশে ডলারের দাম পরিবর্তনশীল তবে ৮০-৮০ টাকা প্রতি ডলার লেনদেন হয়।


এখন অনেকেই প্রশ্ন করেন,  ভাই Godday নাকি কিছুদিন পর ডোমেইন ডিজেবল করে দেয়?


কথাটির কিছুটা সত্যতা রয়েছে। 

একটা কথা মনে রাখবেন কেন কোম্পানিই চায় না তাদের মার্কেট নষ্ট হোক।

আমাদের বাঙালিদের মধ্যে কিছু লোভি মানুষের জন্য এইরকম  হয়ে থাকে।

তারা এক ক্রেডিট কার্ড বা পেপাল দিয়ে ১০০-৫০০ ডোমেইন কিনে বেশি দামে বিক্রি করে। এ বিষয়টি নিশ্চয়ই এ কোম্পানি ভালোভাবে নিবে না। একারণে এদের ডোমেইন সাসপেন্ড হয়ে যায়।

এছাড়া অনেকে দেখা যায় ডোমেইন নিয়ে অনেক অবৈধ সাইট তৈরী করে। যেমনঃ জুয়া, টরেন্ট মুভি, ১৮+ সাইট এসব। এসব ক্ষেত্রে ১০০% ডোমেইন সাসপেন্ড হয়ে যায়।

এখন আপনি যদি নিজের জন্য এবং ভালো ব্লগিং এর উদ্দেশ্যে ডোমেইন নেন তাহলে নির্ধিদায় নিতে পারেন। আপনার কাজের কোন সমস্যা হবে না।


তো এই ছিল আজকের জন্য। 


কোন সমস্যা থাকলে জানাতে ভুলবেন না। 


ধন্যবাদ।

★★★
মানুষের মুখমন্ডলের ছবি কীভাবে আঁকবেন:

আপনি কি ৪ বছরের বাচ্চাদের মতো আঁকছেন? 
যাই হোক,
এটা কোন ব্যাপার না। এই কোর্সের শেষে আপনি একটি সম্পূর্ণ ফটোরিয়ালিকাল প্রতিকৃতি আঁকতে সক্ষম হবেন। 
মাথার কাঠামো, এর অনুপাতগুলি, দৃষ্টিকোণটি কীভাবে আঁকতে হবে এবং কীভাবে একটি শক্ত থ্রিডি চেহারা পেতে আপনার অঙ্কনকে শেড করবেন।

সে সম্পর্কে আপনারও দৃঢ় ধারণা থাকতে হবে। এছাড়াও আপনি কীভাবে মুখের ভাবগুলি, বিভিন্ন আবেগ বা অনুভূতি চিত্রিত করতে হয় তা শিখবেন। 

আপনি কী আঁকতে সক্ষম তা দেখে  আপনার বন্ধুরা এবং পরিবার বিস্মিত হবে। 
আমার সাথে কিছু মজা করুন এবং এই কোর্সটি এখনই শুরু করুন।

আপনি ৪ বছরের বাচ্চাদের মতো প্রতিকৃতি আঁকেন? সমস্যা নেই. আপনি কয়েক দিনের মধ্যে এটি বেশ দ্রুত পরিবর্তন করতে পারবেন।

ধাপে ধাপে কীভাবে প্রতিকৃতি বা ছবি আঁকবেন তা আমি আপনাকে দেখাব। 

এই অনলাইন ছবি অঙ্কন কোর্সের শেষে আপনার অঙ্কন দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে এবং আপনি একটি পেন্সিল দিয়ে একটি বাস্তবসম্মত প্রতিকৃতি আঁকতে সক্ষম হবেন।

আপনার একটি দৃঢ় ধারণা তৈরী হবে।

★ মাথার গঠন

★ মাথার অনুপাত

★ কীভাবে দৃষ্টিকোণে মুখ আঁকবেন

★ কীভাবে বিভিন্ন মুখের বৈশিষ্ট্যগুলি আঁকবেন (চোখ, নাক, কান এবং মুখ)

★ এবং কীভাবে আপনার অঙ্কনকে শেড করবেন গভীরতা তৈরি করতে এবং একটি দৃঢ় 3D চেহারা পাবেন।

এছাড়াও আপনি মুখের ভাবগুলি, বিভিন্ন আবেগ বা অনুভূতিগুলি কীভাবে চিত্রিত করতে হয় তা শিখবেন।

আগের অঙ্কন জ্ঞান বা বিশেষ অঙ্কন সরঞ্জামের প্রয়োজন নেই।

আমি প্রোক্রেট অঙ্কন এবং পেইন্টিং অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করে অ্যাপল পেন্সিল দিয়ে আইপ্যাডে আঁকছি, তবে আপনি একটি সাধারণ অনুলিপি কাগজ, একটি পেন্সিল এবং একটি ইরেজারটি  দিয়েই কাজ চালিয়ে নিতে পারবেন। 

আপনি যদি আমার নির্দেশাবলী অনুসরণ করেন এবং এই কোর্সটি সহ অঙ্কন অনুশীলনগুলি করেন তবে আপনার বন্ধুরা এবং পরিবার শীঘ্রই অবাক হয়ে যাবেন যে আপনি কীরকম আকর্ষণীশ ছবি আঁকতে সক্ষম।

সো চলুন কিছু মজার সময় কাটানো যাক। 
এখনই এই প্রতিকৃতি অঙ্কন কোর্সে ভর্তি হন।

এই কোর্সটি কার জন্য:

১. শিক্ষার্থীরা "কীভাবে মুখমন্ডলের ছবি আঁকবেন" শেখার বিষয়ে আগ্রহী

এই কোর্সে আপনি কী শিখবেন:

<> যে কোনও কোণ থেকে কীভাবে মাথা বা মুখমণ্ডল আঁকবেন

<> চোখ, নাক, কান, মুখ আঁকুন

<> বাস্তব প্রতিকৃতি অঙ্কন করতে পারবেন। 

<> মুখের ভাবগুলি [ হাসি, কান্না, কষ্ট ] আকতে পারবেন। 
ধন্যবাদ 

Monday, September 21, 2020

কিভাবে আপনার জন্য সেরা ফোনটি সিলেক্ট করবেন?

কিভাবে আপনার জন্য সেরা ফোনটি সিলেক্ট করবেন?

কিভাবে আপনার জন্য সেরা ফোনটি সিলেক্ট করবেন?


বর্তমানে মোবাইল ফোন হয়ে গেছে আমাদের সবচেয়ে কাছের বন্ধু। মোবাইল ছাড়া এখন আর কাউকে পাওয়া যায় না। এর অবশ্য কারণও রয়েছে। 

আমাদের পড়াশোনা, হিসাব-নিকাশ, চলাচল, বিভিন্ন তথ্য জানা এক কথায় আমাদের জীবনকে আরো সহজ করে দিয়েছে মোবাইল ফোন। আস্তে আস্তে এটি আমাদের জীবনেরই একটি অংশ হয়ে যাচ্ছে। 


আমরা প্রায় সবাই মোবাইল ফোন কেনার সময় অনেক চিন্তায় পড়ে যাই, কারণ মোবাইল কিনতে গেলে দেখা যায় সবগুলোই পছন্দ হয়। 

কোনটি যে আমার জন্য উপযুক্ত বা কোনটি আমি ব্যবহার করব এটা সিলেক্ট করতে অনেক চিন্তায়  পড়ে যায় অনেকে।


আজকে আমরা দেখব কিভাবে আপনি নিজের জন্য বেস্ট ফোনটি নিবেন?
বা কিভাবে বুঝবেন কোনটি আপনার জন্য বেস্ট ফোন হবে?


১. নিজের মনকে ফলো করুনঃ মোবাইলটি আপনার একান্ত ব্যক্তিগত হবে। আপনি নিজে মোবাইলটি ব্যবহার করবেন। তাই আপনার নিজের কেমন ফোন দরকার সেটা আপনাকে ছাড়া আর কেউ ভালো জানে না। 

তাই নিজের মনকে বুঝুন। নিজের মনকে প্রশ্ন করুন আসলেই আমার কি দরকার? আমার কোন ফোনটির প্রতি টান অনুভব হচ্ছে? 


২. আপনার প্রয়োজনীয়তা বুঝুনঃ আপনি যে ফোনটি নিবেন সেটি দিয়ে কি কাজ করবেন? কতঘন্টা সময় ব্যায় করবেন?  আপনি কি গেম খেলবেন?  নাকি শুধু নেট ব্রাউজিং করবেন?

এককথায় আপনার নিজের প্রয়োজনীয়তা অনুযায়ী মোবাইল নিন।

আরো পড়ুনঃ★যেসব দেশে ফেসবুক নিষিদ্ধ। 

মানুষ কি ডাইনোসরের মত বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে

★ গেম অফ থ্রোনস নিয়ে বিষ্ময়কর কিছু তথ্য।

ঘুড়ি উড়াতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু। 

★ ১৫ বছরের মধ্যেই আর্কটিকের সব বরফ হলে যাবে।

★ ম্যাজিক মাশরুম পর্যবেক্ষণ করলো বিজ্ঞানীরা।


৩. প্রসেসরঃ আপনি যদি একজন গেমার হন বা মোবাইল দিয়ে গেম খেলবেন ভাবছেন তাহলে অবশ্যই ফোনের প্রসেসর দেখে ফোন নি। 

গেমার হলে আপনার সর্বপ্রথম ফোনের প্রসেসর দেখতে হবে। কারণ প্রসেসর লো হলে গেম খেলে মজা পাবেন না।

আবার আপনি শুধু বিনোদনের জন্য ফোনটি নিচ্ছেন তো আপনি ফোনের ভিডিও পারফরম্যান্স দেখে নিন,ক্যামেরা দেখে নিন।

৪. বাজেটঃ মোবাইল কেনার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে আপনার নিজের বাজেট। এখন আপনার বাজেট যদি কম

হয় তাহলে তো আর আপনি আইফোন নিতে পারবেন না তাইন?

তাই নিজের বাজেট খেয়াল রাখুন, বাজেট অনুযায়ী মোবাইল খুজুন। লক্ষ করুন আপনার বাজের মধ্যে কোন কোম্পানির ফোনটি সবচেয়ে বেশি ফিচারযুক্ত। যে কোম্পানির ফোনটি আপনার চাহিদা পূরণ করতে পারবে সেটিই নিন। 


৫. নেটওয়ার্কঃ এটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি স্টেপ। অনেক ফোন আছে যেগুলো হয়ত ৩জি সাপোর্টেট। তবে এখন তো সব জায়গায় হচ্ছে ফোরজি। 

তো আপনি নিশ্চয়ই চাইবেন না আপনার ফোনটি ব্যাকডেটেট হোক। তো আপনি যে বছরেরই ফোনটি কিনেন সবসময় খোজন নিয়ে নিবেন এখন কোন নেটওয়ার্ক চলছে।


৬. ব্যাটারিঃ একটি ফোন কিনলে আপনার অবশ্যই  ব্যাটারি ব্যাকআপ কতটুকু দেয় এটা জেনে নিতে হবে।

একটা কথা জেনে রাখুন আপনার ফোনে যদি চার্জই না থাকে বা কম থাকে তাহলে আপনার ফোন যতই ভালো হোক না কেন মজা পাবেন না।

তাই অবশ্যই ব্যাটারি ব্যাকআপ সম্পর্কে খোজ নিবেন।


৭. ডিসপ্লেঃ ফোন কিনার আগে অবশ্যই ডিসপ্লে খুব ভালো করে দেখবেন। কারণ অনেক বেশি দামের ফোনেও অনেক সময় ভালো ডিসপ্লে থাকে। 

ডিসপ্লে ভালো না থাকলে কিন্তু কোন শান্তি পাবেন না। চাই হোক আপনি গেমের জন্যই নেন বা বিনোদন বা নেট ব্রাউজিং এর জন্য নেন।


পরিশেষে বলি ফোন কিনার সময় শুধু ব্রেন্ড খুজবেন না তাহলে ধরা খাবেন। 

কারণ ভালো ব্রেন্ডের ফোনগুলোই গোপনে কিছু একটা দূর্বপ্রতা লাগিয়ে দেয়। যেমন অনেক কোম্পানির ফেন পাবেন যেগুলায় পিছনের ফিঙ্গার প্রিন্ট আছে তারপরও আপনি এগুলা দিয়ে ছবি তুলতে পারবেন না। তো এ বিষয়গুলো অবশ্যই জিজ্ঞেস করে নিবেন।


পারসোনালি একটি উপদেশ দেই, যে ফোনটিই কিনেন না কেন ইউটিউবে এর পারফরম্যান্স দেখে নিন,দীর্ঘদিন যারা ব্যবহার করছে তাদের রিভিউ দেখে নিন।

Thanks


★★★★★


আমি প্রচুর ব্যবহারকারীদের অভিযোগ করতে দেখছি যে তাদের এই দক্ষতাগুলি অনুশীলনের জন্য বাস্তব জীবনের প্রকল্প নেই।


সুতরাং আমি এই দ্রুত ৯০ মিনিটের প্রকল্পটি তৈরি করেছি যেখানে আপনি দুটি বড় বাস্তব জীবনের অ্যাপ্লিকেশনগুলির মধ্যে একটি সংযোগ তৈরি করে আপনার পাইথন দক্ষতা ব্যবহার করতে পারেন।


আমরা শেষ এফএম এর সাথে শীর্ষস্থানীয় ট্রেন্ডিংয়ের গানগুলি ব্যবহার করব এবং তারপরে স্পটফাইমে একটি প্লেলিস্ট তৈরি করব এবং এটিকে নতুন প্লেলিস্টে যুক্ত করব।


আমি জানি আপনি হয়ত ভাবছেন আপনাকে অনেক অনেক লাইন কোড লিখতে হবে তবে ভয় পাবেন না আমি বলছি মাত্র ৭০ লাইনের মত কোডেই আমরা কাজগুলো করে ফেলব। তাও সেগুলো বেসিক ডিক্লেয়ারেশন হবে।


তাহলে আপনি এখানে কি শিখবেন? আচ্ছা আমাকে এটা ভেঙে বলতে দিন।


★ পাইথনের সাথে কীভাবে REST এপিআই ব্যবহার করবেন তা শিখবেন।


★ কীভাবে আরইএসটি এবং পাইথন ব্যবহার করে বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশনগুলির সাথে সংযোগ স্থাপন করতে হয় তা শিখবেন। 


★ কীভাবে JSON এর প্রতিক্রিয়াগুলি ডিকোড করতে হয় এবং পড়তে হয় এবং সেগুলির মাধ্যমে পার্স করুন।


★ কীভাবে স্পটিফাইয়ের REST এপিআই ব্যবহার করবেন।


★ আপনার বাস্তব ওয়ার্ল্ড অ্যাপ্লিকেশনটিতে কীভাবে ডেটা পরিবর্তন করা যায়।


★ এবং শেষ কিন্তু ইজারা নয় আপনি নিজের জীবনবৃত্তান্তে দেখানোর জন্য একটি দুর্দান্ত প্রকল্পের সাথে শেষ করবেন।


কেবল এটিই নয়, আমি আরও বেশি কার্যকারিতা যুক্ত করার এবং এটিকে আরও ইন্টারেক্টিভ এবং মজাদার করার জন্য কাজ করছি।


এটি কেবল শুরু, আমরা এইভাবে প্রচুর পরিমাণে কাজ করতে পারি।